যে নারীর নামাজ কখনো ও আল্লাহর দরবারে কবুল হবে না?

যে নারীর নামাজ কখনো কবুল হয় না? বন্ধুরা আজ আমি আপনাদের এমন একটি ইবাদতের কথা বলব যা হল মুসমানদের সর্বোত্তম ইবাদত অর্থাৎ নামাজ। ইমানদারদের জন্য নামাজ হলো বেহেস্তের চাবি। একথাটি আমরা সবাই জানি, তার পরে নামাজ প্রত্যেক মুসলমান নর-নারীর উপর ফরজ, তার মধ্যে আজ আমি আপনাদের এমন একটি মাসাআলা বলবো যে নারীর নামাজ কবুল হয় না আল্লাহর দরবারে, এই মাসাআলাটি জানতে আমাদের সাথেই থাকুন, এমন আরো অনেক মাসায়ালা পেতে আমাদের পেইজে লাইক দিয়ে আমাদের সাথে থাকুন।

যে নারীর নামাজ কখনো কবুল হয় না?

যে নারীর নামাজ কখনো কবুল হয় না?

নামাজ সকল মুসলমানদের উপর ফরজ করা হয়েছে। তার পরে এমন কিছু নারী আছে যাদের নামাজ কখনোও কবুল হবে না এই নারী কারা, আপনি কি এই নারীর দলে তাহলে জানুন, তাহলে আসুন আমরা হাদিসটি জানি, নবী  কারীম(সা:) এরসাদ করেন যে, নারী তার স্বামী ছাড়া অন্য কারো জন্য সুগন্ধি ব্যবহার করে এবং যতখন না সে গোসল করে পবিত্র না  হয় ততখন তার নামাজ কবুল হয় না। অন্য একটি হাদিসে নবী  কারীম(সা:) বলেন সেই সর্বশ্রেষ্ঠ স্ত্রী যে তার স্বামীর আদেশ মেনে চলে এবং নিষেদ থেকে বিরত থাকে।

South Korea Lottery Circular 2019

Primary School Teacher Admit Card Download

আপনি কেন সালাত আদায় করবেন?

আসুন আমরা সবাই দৈনিক পাঁচ ওয়ক্ত সালাত আদায়  করি। ইসলামিক নিয়ম অনুযায়ী জীবল পরিচালনা করি, সবাই পর্দার মধ্যে থাকি, কারন আমাদের আখিরাতের কথা মাথায় রাখতে হবে। কারন হলো এই পৃথিবী হলো ক্ষনস্থায়ী আর আখিরাত হলো চিরস্থায়ী। পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ মানুষকে পাপ কাজ থেকে বিরত রাখে, তাই দ্বীনি ভাই ও বোনেরা আসুন আমরা সবাই সঠিক ভাবে ইবাদত করি পূর্ণ ইমান নিয়ে কারন অল্প আমলই জান্নাতের জন্য যথেস্ট যদি আপনার ইমান থাকে। আসুন আমরা ঈমান মজবুদ করি, কেননা পবিত্র ধর্মগ্রন্থ আল কোরআনে ও ৮৫ জায়গায় বলা হয়েছে ঈমানের কথা। আর ৮৩ জায়গায় বলা হয়েছে নামাজের কথা। এতেই আমরা বুজতে পারি ঈমানের গুরুত্ব কতটুকু।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*